হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধে করণীয়

ডা. কেএসএম শামীম : হার্ট অ্যাটাক এটি একটি অত্যন্ত জটিল স্বাস্থ্য সমস্যা। আমরা অনেক সময় শুনি কারো হার্ট অ্যাটাক হয়েছে তাকে হাসপাতাল কিংবা ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার সময় পাওয়া যায়নি। এই হার্ট অ্যাটাক কাদের হয়? যাদের হার্টের রক্তনালীতে বিভিন্নরকম সমস্যা থাকে, সাদামাটাভাবে আমরা যেটা বলি ব্লক থাকে তাদের হার্ট অ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আর হার্টের এই রক্তনালীর অবস্থাটা কাদের খারাপ থাকে? যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ এবং রক্তে কোলেস্টরলের পরিমাণ বেশি কিংবা যারা ধুমপান করে। এর সঙ্গে যোগ হয় যারা শারীরিক পরিশ্রম করেন না, অতিরিক্ত মানসিক দুশ্চিন্তায় থাকেন এবং যাদের শরীরের…

প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়ার কারণ ও করনীয়

ডা. তাজকেরা সুলতানা চৌধুরী : বহু কারণে প্রস্রাবে রক্ত যেতে পারে। যে কারণেই যাক, অবশ্যই দ্রুত চিকিৎসা নিতে হবে। যদিও এমন নয় যে রক্ত গেলেই মারাত্মক রোগ হয়েছে। প্রস্রাবে রক্ত যাওয়া ভালো লক্ষণ নয়। তবে সব রোগী বুঝতে পারেন না যে রক্ত যাচ্ছে। অনেক সময় প্রস্রাব পরীক্ষায় রক্তের উপস্থিতি ধরা পড়ে। প্রস্রাবে রক্ত যাওয়া সাধারণ ব্যাপার নয়, এটা রোগী ও ডাক্তার উভয়ের জন্যই উদ্বেগের কারণ। তাই রক্ত গেলে তা হালকাভাবে না দেখে অবশ্যই পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে কারণ নির্ণয় করে চিকিৎসা নিতে হবে। রক্ত গেলে প্রস্রাব লালচে বা বাদামি হতে পারে। কখনো…

সুস্থ থাকতে যা খেতে পারেন

ইনসুলিন নিয়ন্ত্রণে দারচিনি দেহের সুগার নিয়ন্ত্রণের কাজ করে ইনসুলিন। আর এ উপাদানটির ভারসাম্যহীনতার কারণে নানা জটিলতা দেখা দেয়। তবে নিয়মিত দারচিনি খেলে ইনসুলিনের সঠিক মাত্রা বজায় থাকে এবং নানা শারীরিক জটিলতা থেকে মুক্ত থাকা যায়। মেলাটোনিন নিয়ন্ত্রণে কলা দেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ হরমোনের নাম মেলাটোনিন। এ হরমোন থাকলে ঘুম ও বিশ্রাম ভালোভাবে হয়। কলা খেলে এ হরমোনটির সঠিক মাত্রা বজায় থাকে এবং দেহের নানা জটিলতা দূর হয়। লিভারের জন্য জাম লিভার দেহ থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয় এবং বিপাকক্রিয়া বজায় রেখে দেহকে সচল রাখে। আর লিভারের সুস্থতার জন্য জাম খাওয়া…

অ্যাজমায় ইনহেলার

ডা. আবু রায়হান : অ্যাজমা হলে অনেকে ইনহেলার ব্যবহার করতে চান না। আসলে ইনহেলারের জন্য সবার মনের মধ্যে একটি ভয় থাকে। অনেকে মনে করেন, ইনহেলারই অ্যাজমার শেষ চিকিৎসা। আসলে সেটি নয়। ইনহেলার হলো প্রথম চিকিৎসা। ইনহেলার দিয়েই চিকিৎসা শুরু করতে হয়। এটি সবচেয়ে কার্যকর চিকিৎসা। এর কারণ হলো, ইনহেলারের ভেতরে যে ওষুধ থাকে, এটা খুব কম ডোজে থাকে। ওষুধ সেবনের পর পাকস্থলী থেকে রক্ত শোষণ হয়। কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তাতে রয়েছে। যার কারণে সরাসরি আমরা ইনহেলারের মাধ্যমে শ্বাসনালিতে ঢুকিয়ে দেই। কিছু ডিভাইস আছে, এগুলোর মাধ্যমে ওষুধ সরাসরি দেওয়া যায় এবং কার্যকর…

বদলে যাচ্ছে ডেঙ্গু জ্বরের প্রচলিত ধরন

‘ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার প্রচলিত ধরন বদলে যাচ্ছে। আগে ডেঙ্গু হলে প্রথমে উচ্চমাত্রার জ্বর, প্রচণ্ড মাথা ব্যথা, শরীর ব্যথা ও গায়ে র‌্যাশ বা ফুসকুড়ি হতো। পরবর্তীতে চার থেকে সাতদিনের মধ্যে ডেঙ্গু হেমোরেজিকের নানা লক্ষণ (প্লাটেলেট কমে যাওয়া, দাঁতের মাড়ি, নাক, মুখ ও পায়ুপথে রক্তপাত) প্রকাশ পেতো। কিন্তু চলতি বছর জ্বর ওঠার দু-একদিনের মধ্যে ডেঙ্গু হেমোরেজিকের লক্ষণসহ রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে। এমনকী স্বল্প সময়ে রোগী ‘শক সিনড্রোমে’ আক্রান্ত হয়ে হার্ট, ভাল্ব, কিডনি, লাংসহ বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিকল হয়ে যাচ্ছে। ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তির পরও রোগীর মৃত্যু হচ্ছে। অবস্থাদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে,…

ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করবেন কিভাবে

ডা. তানজিয়া নাহার তিনা ডেঙ্গু জ্বর— ছোট বড় সকলেই এ জ্বরের সাথে পরিচিত। এডিস মশা দ্বারা ডেঙ্গু ভাইরাস প্রবেশ করে মানুষের শরীরে। যে এডিস মশা ডেঙ্গু ভাইরাসের জীবাণু বহন করছে না এমন সাধারণ এডিস মশা ডেঙ্গু আক্রান্ত কোনো ব্যক্তিকে কামড়ালে এডিস মশাটিও ডেঙ্গু ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়ে। সাধারণত শহর অঞ্চলের মানুষদের ডেঙ্গু জ্বরে বেশি আক্রান্ত হতে দেখা যায়। সাধারণত ডেঙ্গু জ্বরে যারা আগে আক্রান্ত হয়েছে, তাদের মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হওয়ার সুযোগ থাকে। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে সম্ভাবনা বেশি থাকে। বছরের মে মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাস, বিশেষ করে গরম ও বর্ষার সময়…

রাতে গলা শুকিয়ে যায়? গোপনে বাসা বাঁধছে যেসব রোগ

রাতের বেলা ঘুমানোর জন্য ছটফট করলেও ঠিকমতো ঘুম আসে না, চোখ বুজলেই গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়, মনে হয় যেন সারাদিনে মুখে পানি পড়েনি। প্রায়ই এমন হচ্ছে? তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে দেরি করবেন না। তবুও প্রাথমিকভাবে জেনে নেওয়া দরকার, ঠিক কী কী কারণে এই উপসর্গগুলো দেখা দেয়। চিকিৎসকরা বলছেন, নীচের রোগগুলোর কবলে পড়লেই রাতে গলা শুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতা থাকে … যাদের হাঁপানির সমস্যা থাকে, তারা নাকের বদলে মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নেন। সে কারনে মুখের লালা শুকিয়ে যায় এবং পানির তৃষ্ণা পায়। সুগারের একটি লক্ষণীয় উপসর্গ হলো গলা শুকিয়ে যাওয়া। হাই…

কোমর ব্যথা মানেই কিডনির রোগ নয়

ডা. এ কে এম শাহিদুর রহমান : জীবনের কোনো না কোনো সময় প্রায় প্রত্যেকেই কোমর ব্যথাজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন। দেশের বিশেষায়িত হাসপাতালগুলোর বহির্বিভাগে, বিশেষ করে কিডনি রোগ বহির্বিভাগে এ ধরনের রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। অনেকের ধারণা, যেহেতু কোমর ব্যথা, সেহেতু কিডনির সমস্যা হতে পারে। অথচ প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এসব রোগীর বেশির ভাগেরই কিডনি রোগের কোনো অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। জেনে রাখা দরকার, কিডনি রোগের উপসর্গগুলোর একটি কোমর ব্যথা হলেও এর আরো অনেক কারণ রয়েছে। কিডনি রোগই এর একমাত্র কারণ নয়। আবার রোগভেদে কোমরে ব্যথার তীব্রতারও তারতম্য হয়। তাই…

আত্মহত্যা প্রতিরোধের দায় সবার

অধ্যাপক ডা. মো. তাজুল ইসলাম : ২০০৩ সালে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন ফর সুইসাইড প্রিভেনশন (আইএএসপি) সংস্থাটি গঠন করা হয়। এ সংস্থার উদ্যোগে ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহযোগিতায় প্রতিবছর ১০ সেপ্টেম্বর ‘বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ’ দিবস পালন করা হয়। এ বছর এর থিম হচ্ছে: ‘আত্মহত্যা প্রতিরোধে কাজ করি একসঙ্গে’। আত্মহত্যা প্রতিরোধ এখনো বিশ্বের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। পৃথিবীতে প্রতিবছর আট লাখ লোক আত্মহত্যা করে। তার মানে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজন আত্মহত্যা করে থাকে। ২০২০ সালে এ সংখ্যা হবে ১৫ লাখ। ১৫-২৯ বছরের মৃত্যুর মধ্যে আত্মহত্যাজনিত মৃত্যু হচ্ছে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কারণ। পৃথিবীর সব মৃত্যুর…

সঠিকভাবে দৌড়ানোর নিয়ম

শরীর সুস্থ রাখতে দৌড় দারুণ এক উপকারী ব্যায়াম। কিন্তু শুধু দৌড়ালে তো হবে না এর জন্য কিছু নিয়ম-কানুন মানাও জরুরি। এতে একদিকে যেমন নিজেকে ইনজুরি থেকে মুক্ত রাখা যাবে তেমনি তুলনামূলক বেশি উপকারও পাওয়া যাবে। হাত দুই হাতকে শরীরের কাছে রেখে সামনে এবং পেছনে চলমান রেখে দৌড়াতে হবে। কনুইয়ের ভাঁজটা এমনভাবে রাখতে হবে, যেন সেখানে ৯০ ডিগ্রি কোণ উৎপন্ন হয়। হাতকে স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করতে হবে। গোড়ালি ও পায়ের পাতা দৌড়ানোর সময় পায়ের গোড়ালি কখনো শক্ত করে রাখা যাবে না। দৌড়ের সময় সরাসরি গোড়ালি শুরুতেই মাটিতে রাখা যাবে না। গোড়ালি…