সব ক্যাডারের সম্পর্ক সবসময়ই সৌহার্দ্যপূর্ণ হওয়া উচিৎ

ডা. কামরুল হাসান সোহেল :

স্বাস্থ্য ক্যাডার, প্রশাসন ক্যাডার সহ অন্যান্য ক্যাডারে কর্মরতদের মাঝে পারষ্পরিক শ্রদ্ধাবোধ থাকা উচিৎ, সম্মান দেখানোর মনোভাব থাকা উচিৎ। প্রশাসন ক্যাডার হলেই নিজেক ব্রাক্ষণ আর স্বাস্থ্য ক্যাডার হলেই কাউকে শুদ্র ভাবা উচিৎ নয়।

একজন ইউএনওর বাচ্চা অসুস্থ, তার বাচ্চাকে দেখে দেয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে একজন নারী চিকিৎসককে তার বাসভবনে গিয়ে দেখে দিয়ে আসতে বাধ্য করলেন !!এই ধরণের আচরণ ক্ষমতার নগ্ন বহিঃপ্রকাশ।ইউএনও ইচ্ছে করলেই তার বাচ্চাকে নিজের গাড়ীতে করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে চিকিৎসা নিতে পারতেন, উনি তা করেননি। চিকিৎসক তার বাসভবনে গিয়ে তার বাচ্চাকে দেখে আসলেন কিন্তু সামান্য ভদ্রতা দেখিয়ে বসতে বলেননি, তার গাড়ী দিয়ে চিকিৎসককে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নামিয়ে দেয়ার জন্য বলেননি! কেন এই অভব্যতা?

সবাই একই রকম নয়, অনেক ভাল ইউএনও আছেন যারা চিকিৎসকদের অনেক সম্মান করেন। গতকাল NAPD (এনএপিডি) থেকে বুনিয়াদী প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে প্রশিক্ষণার্থীরা কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বেশ কয়েকটি উপজেলায় ফিল্ড ভিজিট করতে যায়, সেখানে অধিকাংশ ইউএনওরা তাদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান।
গাজীপুর, শ্রীপুরের ইউএনও রেহেনা আক্তার প্রশিক্ষণার্থীদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান,শুভেচ্ছা উপহার দিয়ে বরণ করে নেন এবং গ্রীণভিউ রিসোর্টে আতিথেয়তার ব্যবস্থা করেন। ময়মনসিংহ, ত্রিশালের ইউএনও মোঃ আব্দুল্লাহ আল জাকির ফুল দিয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের বরণ করে নেন। নারায়ণগঞ্জ সোনারগাও এর ইউএনও মোঃ শাহীনুর ইসলাম, হবিগঞ্জ চুনারুঘাটের ইউএনও মঈন উদ্দিন ইকবাল, সিলেট দক্ষিণ সুরমার ইউএনও মোঃ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ ও প্রশিক্ষণার্থীদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। প্রশিক্ষণার্থী চিকিৎসকরা তাদের উষ্ণ অভ্যর্থনা ও আতিথেয়তায় মুগ্ধ হন এবং তাদের এই আচরণে তাদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ বেড়ে যায়।

শুধু একদিনের জন্য নয় প্রশাসন ক্যাডার ও স্বাস্থ্য ক্যাডার সহ সব ক্যাডারের কর্মকর্তাদের মাঝে সম্পর্ক সবসময়ই এমন পারষ্পরিক শ্রদ্ধাবোধ এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ হওয়া উচিৎ।

Related posts

Leave a Comment