বিএসএমএমইউর স্থগিত চিকিৎসক নিয়োগ পরীক্ষা নভেম্বরে!

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) দুই শতাধিক চিকিৎসক (মেডিকেল অফিসার) পদে নিয়োগের স্থগিত হওয়া পরীক্ষা নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা গ্রহণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নভেম্বরের প্রথম থেকে শেষ সপ্তাহের মধ্যে বুয়েটে খালি ভেন্যু খুঁজছে। ভেন্যু প্রাপ্তি সাপেক্ষে পরীক্ষা গ্রহণের নতুন তারিখ ঘোষণা করা হবে। তবে নভেম্বরের শেষ সপ্তাহেই পরীক্ষা গ্রহণের সম্ভাবনা বেশি। বিএসএমএমইউর নীতিনির্ধারক পর্যায়ের একাধিক ব্যক্তি এ তথ্য জানান।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তারা জানান, সুষ্ঠুভাবে নিয়োগ পরীক্ষা গ্রহণের জন্য ‘নিরপেক্ষ ভেন্যু’ হিসেবে বুয়েট সবার কাছে গ্রহণযোগ্য। বুয়েটের ভেন্যু সহজে খালি পাওয়া যায় না। দুই শতাধিক মেডিকেল অফিসার পদে নিয়োগের বিপরীতে সাড়ে আট হাজারেরও বেশি আবেদন জমা পড়েছে। ফলে একসঙ্গে কয়েক হাজার পরীক্ষার্থীর জন্য প্রয়োজনীয় হল রুম খালি পাওয়া দুষ্কর। তবে আগামী বছরের মার্চে বিএসএমএমইউর রেসিডেন্সি কোর্সের পরীক্ষার নিতে নভেম্বরে সম্ভাব্য দিনক্ষণ দিয়ে হল বুকিং দেয়া রয়েছে। ওই বুকিংয়ে এ পরীক্ষা গ্রহণের চিন্তা করছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, দুই শতাধিক চিকিৎসক নিয়োগ পরীক্ষা বৃহস্পতিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে দুদিন আগে সিন্ডিকেট সভায় এ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়।

পরীক্ষা স্থগিত করাকে কেন্দ্র করে বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) থেকে আবেদনকারী চিকিৎসকদের আন্দোলন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি চলছে। দুপুর ২টা থেকে রাত সাড়ে ৩টা পর্যন্ত বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা দুই প্রোভিসি, কোষাধ্যক্ষ ও রেজিস্ট্রারকে অবরোধ করে রাখে।

বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকদের দুটি গ্রুপ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ও দুপুর ১২টায় পৃথকভাবে ভিসি অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়ার সঙ্গে বৈঠকের পর আন্দোলন সাময়িক স্থগিত করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভিসি কনক কান্তি বড়ুয়া বৃহস্পতিবার দিনভর ভিসি কার্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগদান করলেও বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা আসেননি। কনক কান্তি বড়ুয়া দুপুর আড়াইটার পর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের একটি বৈঠকে যোগ দিতে যান।

ভিসির সঙ্গে বিকেল আনুমানিক সোয়া ৩টায় যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত হয়েছিল। এখন নতুন করে পরীক্ষা গ্রহণে ভেন্যু খোঁজা হচ্ছে। নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে এ পরীক্ষা গ্রহণের চিন্তাভাবনা চলছে।’

সৌজন্যে : জাগো নিউজ

Related posts

Leave a Comment